1. sanjibsavar@gmail.com : admin :
  2. admin@bagat-4.ru : asazweig7718100 :
  3. yenboravisluettah@gmail.com : bimak73555 :
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
ঢাকা ১৯ আসনের সাংসদ সাইফুল ইসলামকে সাভার উপজেলা পরিষদের সংবর্ধনা সাভারের বিরুলীয়ায় উপজেলা চেয়ারম্যান রাজীবের পক্ষে ভোট প্রার্থনা বনগাঁও ইউনিয়নে উপজেলা চেয়ারম্যান রাজীবের পক্ষে গণসংযোগ সাভার উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষে রাজিবের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আশুলিয়ায় ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা জাবিতে ধর্ষণের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেপ্তার ৪ সাভারের রাজাশনে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী রাজীবের পক্ষে গণসংযোগ সাভার উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে ৬৫তম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযান: অবৈধ ৭ ইটভাটাকে ৪৫ লাখ টাকা জরিমানা উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে রাজীবের সমর্থনে সাভার কলেজ ছাত্রলীগের মতবিনিময় সভা

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন: সেনাবাহিনী মাঠে নামবে ২৯ ডিসেম্বর, থাকবে ১৩ দিন

সাভার বার্তা ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১০৪ জন পড়েছে

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৩ দিন মাঠে থাকবে সশস্ত্র বাহিনী। ২৯ ডিসেম্বর মাঠে নেমে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা।

সশস্ত্র বাহিনীর পাশাপাশি পুলিশ-র‍্যাব, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন), বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), কোস্ট গার্ড ও আনসার ব্যাটালিয়নও নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করবে।

নির্বাচন সামনে রেখে বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক পরিপত্রে এসব কথা জানানো হয়।

পরিপত্রে বলা হয়, প্রতি ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তায় বিভিন্ন বাহিনীর ১৫ থেকে ১৭ জন সদস্য নিয়োজিত থাকবেন। স্থানীয় বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করবে সশস্ত্র বাহিনী। ভোটের আগে-পরের ১৩ দিন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সশস্ত্রবাহিনী ‘মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্স’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে। আনসার ব্যাটালিয়ন সহযোগী ফোর্স হিসেবে পুলিশের সঙ্গে ভ্রাম্যমাণ দলে দায়িত্ব পালন করবে। আনসার-ভিডিপিসহ ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তা সদস্যরা ভোটের আগের দুই দিন ও পরের দুই দিন মিলিয়ে পাঁচ দিন নিয়োজিত থাকবে।

পরিপত্রে আরও বলা হয়, ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তায় মহানগর এলাকা, মহানগর এলাকার বাইরে ও পার্বত্য এবং দুর্গম এলাকার সাধারণ ভোটকেন্দ্রে সর্বোচ্চ ১৫ থেকে ১৬ জন এবং গুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্রে সর্বোচ্চ ১৬ থেকে ১৭ জন পুলিশ, আনসার ও গ্রাম পুলিশ মোতায়েন থাকবে। তবে রিটার্নিং কর্মকর্তা চাইলে সংখ্যা বাড়াতে বা কমাতে পারবেন।

আগামী ৬ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে ৭ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় ট্যাক্সি, মাইক্রোবাস, পিকআপ ভ্যান, ট্রাক, লঞ্চ, ইঞ্জিনচালিত নৌযান চলাচল করতে পারবে না বলে পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে। পরিপত্রে বলা হয়েছে, ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত কেউ বৈধ অস্ত্র বহন ও প্রদর্শন করতে পারবেন না। কেবল জরুরি প্রয়োজনীয় বাহন ও নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অনুমতি পাওয়া যান চলাচল করতে পারবে। ভোটগ্রহণ শুরুর আগের ৪৮ ঘণ্টা ও পরের ৪৮ ঘণ্টা মিছিল-মিটিং ও শোভাযাত্রা করা যাবে না।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল ১৭ ডিসেম্বর বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ভোটের মাঠে সেনা মোতায়েনের বিষয়ে অনুরোধ জানিয়েছিলেন। সেই অনুরোধে নীতিগত সম্মতি দেন রাষ্ট্রপতি। ওই বৈঠকের পরদিনই ইসি এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠায় সশস্ত্রবাহিনী বিভাগে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved ©2014 - 2023 Savarbarta24.com
Desing BY Mutasim Billa